শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার নিয়ম-sawal maser 6 roja নিয়ত ও ফজিলত

শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার নিয়ম

শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার নিয়ম বা সাক্ষী রোজা রাখার নিয়মএবং  শাওয়াল মাসের ৬ রোজার নিয়ত কিভাবে করতে হয় ও শাওয়াল মাসের রোজার ফজিলত কি?

শাওয়াল মাসের আমল ও ফজিলত সমূহ কি? শাওয়াল মাসের দোয়া কিভাবে করতে হবে,sawal maser roza কখন রাখতে হয়,sawal maser 6 roja কিভাবে রাখতে হবে,

তাছাড়াও শাওয়াল মাসের রোজা সম্পর্কে হাদিস সমূহ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো আশা করি আপনাদর ভালো লাগবে ইনশাআল্লাহ।

শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার নিয়ম বা সাক্ষী রোজার নিয়ম 

sawal maser 6 roja রাখার অবশ্যই কিছু নিয়ম কানুন রয়েছে আমরা আজকে তা বিস্তারিত দেখবো,
যেহেতু ঈদের দিন রোজা রাখা নিষেধ তাই ঈদের দিনের পর থেকে শাওয়াল মাসের মধ্যে যে কোনো ৬দিনে ৬টি রোজা রাখলেই হবে

নামাজ ভঙ্গের কারণ কয়টি 19 টি ও কি কি

শাওয়াল মাসের রোজা কখন রাখতে হয়

শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজা অবশ্যই  শাওয়াল মাসের মধ্যেই রাখতে হবে, তবে একাধারে রাখতে হবে

এমন কোনো কথা নেই  আপনি চাইলে একধারে ৬টি রোযা একসাথে রাখতে পারেন 

আবার ভেঙ্গে ভেঙ্গেও রাখতে পারেন, অর্থাৎ  ১টা  রোজা রাখলেন আবার একদিন বা ২দিন রাখলেন না পরে আবার রাখলেন, 

তবে অনেক আলেমের মতে যদি আপনার রমজানের কোনো রোজা কাযা থাকে তাহেল সেই কাযা রোজা গুলি  আগে রাখতে হবে পরে  sawal maser সুন্নাত রোজা সমূহ রাখতে হবে।

আবার অনেক আলেমের মতে  sawal মাস শেষ হয়ে গেলে যেহেতু এই শাওয়াল মাসের ৬টি রোজা রাখার সুযোগ থাকবেনা

তাই যদি সময় না থাকে তাহলে শাওয়াল মাসের রোজা রাখার পরে কাজা রোজা সমূহ আদায় করতে পারেন,

তবে আমার মনে হয় আপনার যদি কাজা রোজা থেকে থাকে তাহলে শাওয়াল মাসের প্রথম দিকে কাজ রোজা গুলি আদায় করার পরে আপনি শাওয়াল মাসের ছয়টি সুন্নাত রোজা রাখতে পারেন তাহলে সবচেয়ে ভালো হয় 

শাওয়াল মাসের রোজার ফজিলত সমূহ ২০২২

শাওয়াল মাসে ছয়টি রোজা রাখার অনেক ফজিলত  রয়েছে তার মাঝে কিছু গুরুত্ব পূর্ণ সহীহ হাদিসে বর্ণিত ফজিলত সমূহ নিয়র আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ,

“রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি রমজান মাসের রোজা রাখল অতঃপর শাওয়াল মাসে ৬টি রোজা রাখল; ওই ব্যক্তি সারা বছর রোজা রাখার সমান সাওয়াব পাবে।’ (মুসলিম) “

শাওয়ালের ৬টি রোজা রাখা সুন্নাত,এটি অনেক বড় একটি আমল, যদি কেউ রমজানের রোজা সমূহ রাখার পরে

sawal maser roza ৬টি সঠিক নিয়মে শুধু আল্লাহ তায়ালার জন্য রাখে আল্লাহ তায়ালা তাকে এক বছর রোজা রাখার সাওয়াব দেন,

তাছাড়াও রোযার প্রতিদান আল্লাহ তালা নিজ হাতে দিবেন আর আল্লাহ তায়ালা নিজ হাতে কোন প্রতিদান দিয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই সেটা অনেক বড় কিছু হবে নিঃসন্দেহে

হাদীসে বর্ণিত আছে যদি কেউ একটি আমল করার পরে অন্য আরেকটি আমল করার সুযোগ পায় তাহলে বুঝা যায় যে তার পূর্বের আমল কবুল হয়েছে, 

সে ধারাবাহিকতায় আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে যদি শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজা করার তৌফিক দান করে

অর্থাৎ আমরা যদি sawal maser roza ৬টি করতে পারি তাহলে আমরা বুঝতে পারবো যে আমাদের রমজানের রোজা সমূহ  কবুল হয়েছে,

তাই আল্লাহ তা’আলা আমাদেরকে শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজা করার তৌফিক দান করেছে।

শাওয়াল মাসের ছয় রোজার নিয়ত বা সাক্ষী রোজা নিয়ত

সাক্ষী রোজার নিয়ত সমূহ শাওয়াল মাসের রোজা রাখার নিয়ত কিভাবে করবেন এ সম্পর্কে আমরা এখন দেখব
শাওয়াল মাসে রোজার নিয়ত সমূহ  সেহরির শেষ সময় এর পূর্বে করতে হবে

যদি কেউ সেহরি সময়ের পরে অর্থাৎ ঘুম থেকে উঠার পরে আটটা দশটা বেজে গেছে সে চিন্তা করল যে আমি এখন রোজা রেখেফেলি,

এরকম করলে হবে না তাই সেহেরির সময় নিয়ত করতে হবে বা ঘুমানোর আগে মনে মনে নিয়ত করলেই হয়ে যাবে মুখে উচ্চারণ করা জরুরিনা,


তবে  আপনি এভাবে বলতে পারেন যে আমি শাওয়াল মাসের সুন্নত রোজা রাখতেছি আল্লাহ তুমি কবুল করো এরকম টা  বললেও হয়ে যাবে 

অথবা আপনার মত করে নিয়ত করে নিতে পারেন বাংলা বললেই যথেষ্ট হবে ইনশাল্লাহ মুখে উচ্চারণ না করলেও  কোনো সমস্যা নেই ,

যদি  আপনি মনে মনে এরাদা করেন অর্থাৎ চিন্তা করেন তাহলে নিয়ত হয়ে যাবে এবং রোজা সহীহ হয়ে যাবে.

শাওয়াল মাসের রোজা সম্পর্কে আরবি হাদিস

sawal maser রোজা সম্পর্কে  সহীহ হাদিস দলিল সহ  নিম্নে আলোচনা করা হলো, 

শাওয়াল মাসের রোজা
শাওয়াল মাসের রোজা-sawal maser roza

হাদীছে বর্ণিত হয়েছে : ” عَن أَبي أَيُّوبَ رضي الله عنه: أَنَّ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم، قَالَ: «مَنْ صَامَ رَمَضَانَ ثُمَّ أَتْبَعَهُ سِتّاً مِنْ شَوَّالٍ، كَانَ كَصِيَامِ الدَّهْرِ». رواه مسلم “

বাংলা অর্থ : আবূ আইয়ূব আনসারী (রাযি) হতে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “

যে ব্যক্তি রমযানের রোজা পালনের পর শাওয়াল মাসের ছয়টি  রোজা রাখল, সে যেন সারা বছর রোজা রাখল।” সহীহ দলিল:(মুসলিম) [মুসলিম ১১৬৪, তিরমিযি ৭৫৯,]

sawal maser roja বা সাক্ষী রোজার ফজিলত ও আমল

শাওয়াল মাসের বিশেষ আমল মধ্যে রয়েছে শাওয়ালের ছয়টি রোজা করা হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম sawal maser roza রাখতেন এবং সাহাবীরাও করতেন 

তাই আমরা যে ধারাবাহিক আমল করি প্রতি মাসে সেরকম ভাবে আমল গুলো  আমরা প্রতিনিয়ত করব

এবং পাশাপাশি শাওয়াল মাসের বিশেষ করে সুন্নাত ৬টি রোজা রাখবো ইনশাল্লাহ এবং আরেকটি বিশেষ আমল হচ্ছে বিবাহ করা

যারা বিবাহের উপযুক্ত   যদি তাদের বিবাহ করার সামর্থ্য থাকে তাহলে শাওয়াল মাসে বিবাহ  করতে পারেন কারণ শাওয়াল মাসে বিবাহ করা করা সুন্নত

শাওয়াল মাস ইংরেজি কোন মাস?

2022 সালে শাওয়াল মাস হল ইংরেজি মে মাসে আমরা অনেকেই প্রশ্ন করে থাকি  শাওয়াল মাস ইংরেজি কোন মাস, এক এক  বছর শাওয়াল মাস ইংরেজির এক এক  মাস হতে পারে এ

বং শাওয়াল মাসের ইংরেজির যেকোনো দুটি মানুষ হতে পারে 
যেমন মে মাসের 15 তারিখ যদি শাওয়াল মাসে শুরু হয় তাহলে জুন মাসের 15 তারিখ পর্যন্ত চলবে

তাই ২০২২সালে শাওয়াল মাস হলো ইংরেজির  মে” মাস 

শাওয়ালের ছয় রোজা রাখার নিয়ম-sawal maser 6 roja নিয়ত ও ফজিলত বা সাক্ষী রোজা শেষ কথা 

আশাকরি শাওয়াল মাসের রোজার নিয়ম সমূহ এবং নিয়ত ফজিলত সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন শাওয়াল মাসের রোজা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মুমিনের জন্য

এটাকে সাক্ষী রোজা বলা হয় আল্লাহ তালা আমাদেরকে সাল মাসের ছয় রোজা রাখার তৌফিক দান করুক আমিন
ভালো লাগলে আমাদের পোস্টে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আশা করি আপনিও সাওয়াবের বাগিদার হবেন ইনশাল্লাহ ,আসসালামু আলাইকুম । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *