৫ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত-Namajer Fojilot Bangla

৫ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত

আজকে আমরা ৫ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত সম্পর্কে মোটামুটি জানার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ,নামাজ হচ্ছে আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে উপহার বান্দার সকল সমস্যা সমাধান করতে

অথবা আল্লাহতালার কাছ থেকে কোন কিছু নেওয়ার প্রয়োজন হলে আমরা নামাজের মাধ্যমে খুব সহজে আল্লাহ তায়ালার কাছ থেকে সেটা নিতে পারি

নামাজ হচ্ছে ইসলামের দ্বিতীয় স্তম্ভ সর্বপ্রথম হলো কালিমা,

দ্বিতীয় হচ্ছে নামাজ হযরত মোহাম্মদ ( সা:) যখন আল্লাহ তাআলার দিদার এর জন্য মেরাজ সফর করেন,

তখন আল্লাহ তাআলা খুশি হয়ে হুযুর সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম কে উপহার হিসেবে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ দিয়েছেন

তার উম্মতের জন্য, নামাজ বান্দার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রয়োজনীয়

নামাজের ফজিলত অনেক অনেক বেশি তাই আমরা একটি অথবা 2 টি অথবা 50 টি পোস্ট করে ও নামাজের ফজিলত সম্পূর্ণভাবে আলোচনা করা সম্ভব না,

তাই আমরা এই পোস্টে নামাজের গুরুত্বপূর্ণ কিছু ফজিলত আপনাদের সাথে শেয়ার করব ইনশাল্লাহ

৫ওয়াক্ত নামাজের গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি ফজিলত

হাদিসে বর্ণিত আছে যে, যে ব্যক্তি সময়ের প্রতি লক্ষ্য করিয়া এহতেমামের সহিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করবে আল্লাহতালা তাকে পাঁচটি পুরস্কারে পুরস্কৃত করবেন

এই পাঁচটি পুরস্কার এর মধ্যে একটি হচ্ছে দুনিয়ায় এবং বাকি চারটি হচ্ছে আখেরাতে অর্থাৎ মৃত্যুর পরে।

1.দুনিয়াতে রিজিকের অভাব দূর করে দিবেন

আমরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত যে রিজিকের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে থাকি

এখানে ওলামাগণ বলেন রিজিক বলতে দৈনন্দিন জীবনে চলার পথে সকল প্রয়োজনীয় জিনিস কে রিজিক দ্বারা বুঝানো হয়েছে,

যেমন থাকা-খাওয়া কাপড়-চোপড় ইত্যাদি এদের মধ্যে পড়ে হাদিসে বর্ণিত আছে

যে কেউ যদি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ গুরুত্ব সহকারে সময় মতো আদায় করিবে আল্লাহতালা দুনিয়াতে তার রিজিকের অভাব দূর করে দিবেন সুবহানাল্লাহ

জানাজার নামাজ পড়ার নিয়ম ও দোয়া

2. কবরের আজাব মাফ করে দিবেন

মৃত্যুর পরে সর্বপ্রথম আখেরাতের ঘাঁটি হল কবর হাদীসে বর্ণিত আছে

যে ব্যক্তি এই প্রথম ঘাটি অতিক্রম করতে পারবে তার জন্য আখিরাতের পরবর্তী ঘাঁটিগুলো অতিক্রম করা সহজ হবে

আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহু কবরের কথা স্মরণ করে সে এমনভাবে কাঁদতেন যে কাঁদতে কাঁদতে তার চোখ থেকে পানি পড়তে পড়তে দাড়ি মোবারক ভিজে জমিনে পড়তো

সাহাবায়ে কেরাম জিজ্ঞাসা করলেন আপনি আখেরাত জান্নাত জাহান্নাম এর কথা শুনে এত কাদের না কিন্তু কবরের কথা শুনে এত কাঁদেন কেন?

আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন আখিরাতের প্রথম ঘাটি হচ্ছে কবর

তাই এই ঘাটি যে ব্যাক্তি সহজে অতিক্রম করতে পারবে তার জন্য পরবর্তী ঘাঁটিগুলো অতিক্রম করা সহজ হবে

এবং যে ব্যক্তির এই কবরে ঘাঁটিটি অতিক্রম করা কঠিন হবে তার জন্য পরবর্তী ঘাঁটিগুলোর অতিক্রম করা কঠিন হয়ে যাবে

আর হাদিসে বর্ণিত হয়েছে যে ব্যক্তি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ সময় মতো আদায় করবে আল্লাহ তা’আলা তাঁকে দ্বিতীয় যে পুরস্কারটি দিবেন সেটা হচ্ছে

কবরের আজাব আল্লাহ তায়ালা মাফ করে দেবেন সুবহানাল্লাহ

3.পুলসিরাতের পুল বিজলির গতিতে পার করে দেবে

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ সঠিকভাবে পড়ার জন্য আল্লাহ তাআলা তৃতীয় যে পুরস্কারটি দিবেন সেটি হচ্ছে পুলসিরাতের পুল বিজলির গতিতে পার করে দিবে

পুলসিরাত হচ্ছে এমন একটি ফুল চুলের চেয়েও চিকন কিন্তু হীরার চেয়েও ধার

পুলসিরাতের পোল্টি এত লম্বা ত্রিশ হাজার বছরের রাস্তা এই পোল্টি যাদের আমল ভালো হবে তারা খুব সহজে পার হয়ে যেতে পারবে

আর যাদের আমলনামা ভালো হবে না তাদের জন্য এই পুলসিরাতের পুলটি হবে ভয়াবহ কঠিন,

সে যখন পা দিবে তখন পা কেটে যাবে যখন হাত দিয়ে ধরবে হাত কেটে যাবে অবশেষে জাহান্নামে পড়ে যাবে

আর পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার দরুন আল্লাহতালা পুলসিরাতের পুল বিজলির গতিতে পার করে দিবেন সুবহানাল্লাহ

গোসলের ফরজ কয়টি তিনটি কি কি

4.ডান হাতে আমলনামা দিবেন

কাল কেয়ামতের দিন এ কঠিন অবস্থায় যখন সবাই আমলনামার জন্য একত্রিত হবে

এই ভয়াবহ অবস্থায় সবাই আশায় থাকবে যেন ডানহাতে আমলনামা পায়

যে ব্যক্তি ডানহাতে আমলনামা পাবে সে তো খুব খুশি এবং জান্নাতে চলে যাবে

আর কিছু কিছু ব্যক্তি আমলনামা বাম হাতে পাওয়ার ভয়ে সে তার নিজের হাত চিবিয়ে খেতে থাকবে যেন তাকে বাম হাতে আমলনামা দেওয়া না হয়

এত ভয়াবহ অবস্থা হবে পিছনের দিক দিয়ে হাত ঘুরিয়ে বুক চিরে তাকে বাম হাতে আমলনামা দেয়া হবে সেটা খুব কষ্ট এবং অসহনীয় হবে

আর যে ব্যক্তি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়বে আল্লাহতালা তাকে যে 4 নম্বর পুরস্কারটি দিবেন সেটা হচ্ছে ডানহাতে আমলনামা দিবেন সুবহানাল্লাহ

5.বিনা হিসাবে জান্নাত দিবেন

কাল কিয়ামতের দিন আল্লাহতালা কোন বান্দার কাছে যদি হিসাব চাই কেউ আল্লাহতালার কাছে হিসাব দিয়ে জান্নাতে যেতে পারবেনা

আল্লাহ তাআলার রহমত ও হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর সুপারিশ ছাড়া জান্নাতে যাওয়া সম্ভব না

আমরা দুনিয়াতে আল্লাহ তায়ালার কত নিয়ামত উপভোক করেছি, তার মধ্যে যদি আল্লাহ তায়ালা আমাদের কাছে ১ গ্লাস পানির হিসাব চায় তাও আমরা দিতে পারবোনা

আর সকল কিছু বাকি থাকল সে জন্য আল্লাহ তাআলার যার কাছে হিসাব চাবে র ধরা পড়ে যাবে

আর যে ব্যক্তি পাঁচ ওয়াক্ত নামায সময় মত আদায় করবে আল্লাহ তা’আলা তাঁকে 5 নম্বর যে পুরস্কারটি দিবেন

সেটা হচ্ছে তাকে বিনা হিসেবে জান্নাত দিয়ে দিবেন সুবহানাল্লাহ আল্লাহু আকবার

Namajer Fojilot Bangla শেষ কথা

আশা করি আমরা ৫ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত-Namajer Fojilot Bangla সম্পর্কে কিছু আপনাদের সাথে শেয়ার করতে পেরেছি

এ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত সম্পর্কে জেনে আমাদের করণীয় হবে আমরা যেন সঠিক নিয়মে পাঁচ ওয়াক্ত নামায সময় মত আদায় করতে পারি

এবং উপরোক্ত পুরস্কার গুলি আমরা পেতে পারি আল্লাহ তা’আলা আমাদের সবাইকে আমল করার জন্য তৌফিক দান করুক

এবং আমাদেরকে এই পুরস্কার গুলি বুঝার জন্য তৌফিক দান করুক আমিন

ভালো লাগলে আমাদের পোস্টটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আসসালামু আলাইকুম

৫ওয়াক্ত নামাজের ফজিলত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *